শিরোনাম
জাতীয় সংগীতে মুখরিত সোহরাওয়ার্দী উদ্যান

জাতীয় সংগীতে মুখরিত সোহরাওয়ার্দী উদ্যান

আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি’—বাংলাদেশের মানুষের প্রাণের সংগীত এই জাতীয় সংগীত। আজ সোমবার বিকেল চারটা ৩১ মিনিটের দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক সুরে জাতীয় সংগীত গেয়ে ওঠে লাখো মানুষ। মুখরিত হয়ে ওঠে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান।
শুধু সোহরাওয়ার্দী নয়; সেখান থেকে টিএসসি, শাহবাগ, বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে ছিল জনতার উত্তাল ঢেউ। সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম, বিজয় ২০১৩ উদযাপন জাতীয় কমিটি, গণজাগরণ মঞ্চ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চ, বিজয় ৪টা ৩১ মঞ্চে যৌথভাবে ওই উত্সব পালন করে। উত্সবের মূল স্লোগান ছিল ‘বিজয়ের শুদ্ধতায় বাংলাদেশ বিশ্বময়’।dhaka news

অুনষ্ঠানে শপথ বাক্য পড়ান সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের সভাপতি এ কে খন্দকার। তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অগনিত শহীদ এবং তাদের  দেশপ্রেমের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে আগামী দিনে দেশ গড়ার শপথ পড়ান। মুক্তিযুদ্ধের সময়কার আত্মসমর্পণের ঘটনার প্রেক্ষাপট বর্ণনা করেন ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেন, এবারের বিজয় দিবস যে আমরা বড় আঙ্গিকে করব সেই ঘোষণা তিনমাস আগে দিয়েছিলাম। জাতীয় সংগীত গাওয়ার জন্য চারটা ৩১ মিনিট বেছে নেওয়ার কারণ হিসেবে তিনি  বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিকেল চারটা ৩১ মিনিটে হানাদার বাহিনী আমাদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছিল।  সেই সময়কে মনে রেখেই এই আয়োজন। তিনি বলেন, আজকের উত্সব থেকে যে শক্তি জাতি পেয়েছে তা আগামী দিনের অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে।

সন্ধ্যার পরে কনসার্ট ফর ফ্রিডম অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে দেশের বিখ্যাত কয়েকটি ব্যান্ডদল সংগীত পরিবেশন করে। সন্ধ্যায় ২০ মিনিট ধরে আতশবাজির উত্সব চলে।